মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৫৫ অপরাহ্ন

pic
নোটিশ :
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে!! জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে বিস্তারিত জানতে : ০১৭১২-৬৪৫৭০৫
এম, এ, মান্নান মহোদয়ের সমালোচনাকারীদের বলছি…

এম, এ, মান্নান মহোদয়ের সমালোচনাকারীদের বলছি…

ফয়ছল আহমদ

আপনারা আর কত ভুলের মধ্যে, অন্ধকারের মধ্যে, কুচক্রীদের দলে থাকবেন? আপনাদের কি বিবেক বলে কিছু আছে? যদি থেকে থাকে তাহলে দয়া করে একটু কাজে লাগান প্লীজ!

জননেতা এম, এ, মান্নান মহোদয়ের কুৎসা রটনা করে, তার ক্ষতি সাধন করে আপনি কী করছেন? নিজের পায়ে নিজে কুড়াল মারছেন না তো? একবার নিরবে চিন্তা করে দেখবেন প্লীজ!

বাঙ্গালীর (অধিকাংশের) ঐ একটাই দোষ তারা দাঁত থাকতে দাঁতের মর্যাদা দিতে জানে না। যখন দাঁত থাকবে না তখন আবার তারাই হায় হায়! করে মরবে, কিন্তু তখন কিছুই করার থাকবে না। ইতিহাস সাক্ষী মীর জাফরের মত বেইমান আর কুচক্রীদেরও পরবর্তীতে শুভবুদ্ধির উদয় হয়েছিল, দেশপ্রেম জেগেছিল, অনুশোচনা হয়েছিল কিন্তু ততদিনে গঙ্গার জল অনেক বয়ে গিয়েছিল যা আর ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয় নি, ২০০ শত বছর আমাদেরকে পরাধীনতার গন্ডিতে আবদ্ধ থাকতে হয়েছিল। ব্যাকুবদের বলি সময় থাকতে সঠিক পথে আস, মিথ্যাবাদীদের দল ভাড়ি আর কর না।
“ঐ নিয়েছে ঐ নিল যা কান নিয়েছে চিলে,
চিলের পিছে মরছি ছুটে আমরা সবাই মিলে ”
বলি ঐ মূর্খরা কী ঐ কবিতা ছোট বেলায় পড়েনি? এর থকে কি শিক্ষা নিতে পারেনি?

একজন ভুল বুঝালেই কেন অন্ধভাবে ভুলেই ডুবে থাকতে হবে? আল্লাহ কী বিবেক, চোখ, কান দেন নি সঠিকতা যাচাই -বাচাই করতে? নিজের ব্যক্তিগত সার্থকে জলাঞ্জলি দিয়ে বৃহত্তর সার্থের কথা কি চিন্তা করা যায় না? একবার ভেবে দেখা কি যায় না যে এম, এ, মান্নানের মত মানুষকে বার বার নির্বাচিত করলে বৃহত্তর সুনামগঞ্জবাসী কি পাবে? কী সুসংবাদ অপেক্ষা করছে আমাদের জন্য? তার হিসেব মিলে যাবে যদি আমরা একটু সৎ দৃষ্টি দিয়ে ফিরে দেখি সুনামগঞ্জের ১০ বছর পূর্বের চিত্র আর এম, এ, মান্নান যুগের বর্তমান চিত্র। আমরা অনুধাবন করতে পারব এম, এ, মান্নান আমাদের বৃহত্তর সুনামগঞ্জবাসীর জন্য কেমন রত্ন মানিক।

এমনকি পূর্বে যারা সুনামগঞ্জ থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন, মন্ত্রী হয়েছিলেন তাদের উন্নয়ন কর্মকান্ডের সাথে যদি এম, এ, মান্নানের বর্তমান উন্নয়ন কর্মকান্ডের তুলনা করি তাহলে পরিসংখ্যান মলিয়ে আমরা দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে বলতে পারব এম, এ, মান্নানই সুনামগঞ্জের এপর্যন্ত সর্বকালের সেরা রত্ন।

বলি একবার আমার সুস্থ বিবেকটাকে প্রশ্ন করি – এই বৃদ্ধ বয়সে এই মানুষটা কেন অমানষিক পরিশ্রম করছেন? কেন জীবনের শেষ সময়টা পরিবার পরিজনকে না দিয়ে আমাদের ধারে ধারে ঘোরছেন?
কেন সপ্তাহে একদিন অবকাশ যাপন না করে বার্ধক্যকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ৫০০ শত কি.মি. পথ পাড়ি দিয়ে ছুটে আসেন আমাদের পাশে?
কেন সারাদিন জনসভা করে যখন শরীর ক্লান্ত! তখনও জনগনের ভীরে বসে অসয্য গরমের মাঝেও জনগনের কথা শুনেন, আবদারে সই করেন? কেন এই সময়টায় কি তনি এ, সির ঠান্ডা বতাসে আরাম করতে পারতেন না? তিনি অর্থ লুলুপ হলে কি ঢাকায় বসে অর্থের পাহার গড়তে পারতেন না?

কেন মুখদিয়ে কথা বেরুতে না চাইলেও জোর করে, কষ্ট করেও কথা বলেন? এত্তসব সেক্রিফাইস তনি কার জন্যে করেন?
তার ছেলের জন্য? মেয়ের জন্য? স্ত্রীর জন্য?
আপনারা কী জানেন তার ছেলে, মেয়ে, স্ত্রী যথেষ্ট প্রতিষ্ঠিত?

তাহলে এই অমানুষিক পরিশ্রম কার জন্য? সুস্থ্য বিবেকের কাছে আমার প্রশ্ন রইল।

এম, এ, মান্নান যদি আবার নির্বাচন না করেন, সবকিছু ছেড়ে ছুড়ে যদি ঢাকায় কিংবা বিদেশে গিয়ে বসে থাকেন তাহলে কি হবে? এম, এ, মান্নান মহোদয়ের কি বিরাট ক্ষতি হয়ে যাবে? যারা এমন ভাবেন আমি বলব তারা নেহায়েত মূর্খ!
এম, এ, মান্নান মহোদয়ের ব্যক্তিগত কোন ক্ষতি তা আর্থিক কিংবা মর্যাদা / সম্মান কোনদিকেই ক্ষতি হবে না। দেশের সর্বোচ্চ সম্মানীত চাকরী বা সংসদের প্রতিনিধিত্ব, দেশ বিদেশে সুপরিচিতি কিসের অভাব / অপূর্ণতা তিনার?

কিন্তু একবার কি ভেবে দেখেছেন তিনি নির্বাচনে না আসলে / নির্বাচিত না হলে আমাদের বৃহত্তর সুনামগঞ্জবাসীর কি কি ক্ষতি হতে পারে? আর এমন ক্ষতি কি পরবর্তী শত বছরেও পূর্ণ হবে? দয়া করে আপনাদের চিন্তাশক্তিকে একটু কাজে লাগান সদুত্তর পেয়ে যাবেন আশাকরি।
‘সমালোচনাকারীদের শুভবুদ্ধির উদয় হোক ‘ বৃহত্তর সুনামগঞ্জবাসীর মঙ্গল বয়ে আসুক। প্রিয় মান্নান মহোদয়ের সুস্থতা ও সফলতা আসুক।

ফয়ছল আহমদ, প্রভাষক- ডুংরিয়া হাই স্কুল এন্ড কলেজ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 DakshinSunamganj24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com