শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০১:২৩ অপরাহ্ন

pic
নোটিশ :
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে!! জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে বিস্তারিত জানতে : ০১৭১২-৬৪৫৭০৫
শান্তিগঞ্জ আ.লীগের কমিটি নিয়ে সরব সোশ্যাল মিডিয়া

শান্তিগঞ্জ আ.লীগের কমিটি নিয়ে সরব সোশ্যাল মিডিয়া

স্টাফ রিপোর্টার::
সুনামগঞ্জ জেলার একটা গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা শান্তিগঞ্জ। বিশেষ করে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপির নিজ আসন হওয়ার এর কদর একটু বেশি। পুরো জেলার মানুষই এই উপজেলার রাজনীতি, উন্নতির দিকে চেয়ে থাকেন৷ বহু বছর পেরিয়ে গেলেও কমিটি হয়নি উপজেলা আ.লীগের। সর্বশেষ গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর সকল প্রস্ততি সম্পন্ন হলেও হয়নি উপজেলা আ.লীগের সম্মেলন। দীর্ঘদিন ধরে কমিটি না হওয়ায় প্রাণচাঞ্চল্যো নেই নেতাকর্মীদের মাঝে৷ তবে ইতিমধ্যেই হঠাৎ করেই নেতৃত্ব পরিবর্তনের গুঞ্জন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব হয়েছেন নেতাকর্মীরা। পরিকল্পনামন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে এবং রাজনীতির প্রাণচাঞ্চল্য আনতে নতুন নেতৃত্বের দাবী সর্বমহলে। বেশকিছুদিন যাবৎ উপজেলা আ.লীগ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা কমিটি নিয়ে তুলকালাম চালিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তারা গুরুত্বপূর্ণ এই উপজেলায় আ.লীগের সভাপতি হিসেবে পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত রাজনৈতিক সচিব ও উপজেলা আ.লীগের  উপ-দপ্তর সম্পাদক  হাসনাত হোসেনকে চাচ্ছেন। ইতিমধ্যেই তাকে সভাপতি চেয়ে ফেসবুক সরগরম। হাজার হাজার স্ট্যাটাস দেয়ার পাশাপাশি উপজেলাজুড়ে পেস্টুন, ব্যানার ও বিলবোর্ড দিয়ে সমর্থন জানাচ্ছেন সমর্থকেরা।
হাসনাত হোসেনকে সভাপতি কর‍তে মিটিং মিছিল করছেন নেতাকর্মীরা। তারা বলছেন, দীর্ঘদিন কমিটি না থাকায় সাংগঠনিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। ফলে নেতাকর্মীদের মধ্যে অসন্তুষ দেখা দিয়েছে। এই মুহুর্ত আ.লীগের হাল ধরেছেন হাসনাত হোসেন। মন্ত্রীর নির্দেশে প্রতিটি এলাকায় মানুষের কল্যাণে বিচরণ করছেন তিনি। নেতাকর্মীদের সুখে দুঃখে রয়েছেন পাশে। যেকোন অনুষ্ঠানে হাসনাত হোসেনের উপস্থিতি সর্বাঙ্গে। তাই এমন যোগ্য নেতৃত্বকেই উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি  চান সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা।
জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম শিপন তার ফেসবুক আইডিতে হাসনাত হোসেনের বিভিন্ন গুনাবলী তুলে ধরেছেন। তিনি দাবী করেছেন সবার পরিচিত মুখ, সজ্জন ব্যক্তির হাতেই তুলে দেওয়া হোক উপজেলা আ.লীগের দায়িত্ব।
উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান কমিটির এক নেতা বলেন, দীর্ঘদিন কমিটি না হওয়ায় প্রাণচাঞ্চল্য নেই নেতাকর্মীদের মাঝে। যেকোন প্রয়োজনে আমরা হাসনাত ভাইকে পাশে চাই। আমরা এই তরুণ নেতৃত্বকে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে চাই।
তৃণমূল পর্যায়ের অনেকের সাথে কথা হলে তারা জানান, দ্রুত আমাদের কমিটি করে দেয়া হোক। পরিকল্পনামন্ত্রী মহোদয়ের হাতকে শক্তিশালী করতে নতুন নেতৃত্ব চাই আমরা। সবসময় আমরা যাকে কাছে পাই তাকেই উপজেলা আ.লীগের দায়িত্ব দেয়া হোক।
উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল বাছিত সুজন বলেন, পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হাসনাত হোসেনকেই  হিসেবে চাই। উনি সভাপতি হলে দলীয় কার্যক্রম বৃদ্ধি পাবে। উপজেলায় আ.লীগের অবস্থান শক্ত হবে।
মুঠোফোনে কথা হলে পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত রাজনৈতিক সচিব ও উপজেলা আ.লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক হাসনাত হোসেন বলেন, শান্তিগঞ্জ মাননীয় পরিকল্পনা মন্ত্রী আলহাজ্ব এম এ মান্নান এমপি মহোদয়ের জন্মস্থান। মন্ত্রী মহোদয়ের রাজনীতিতে আগমনে এ এলাকা এখন রাজনীতির উর্বর ভূমি। মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় কে কেন্দ্র করেই রাজনীতি আবর্তিত এবং নেতা কর্মীরা উজ্জীবিত। যারা আমাকে সমর্থন করে বিভিন্ন প্রচারণা চালাচ্ছেন তাদের প্রতি আমার সম্মান ও ভালোবাসা। কিন্তু মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় যাদেরকে যোগ্য মনে করবেন তাদেরকে দিয়েই একটি উপযুক্ত কমিটি গঠন করতে হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2017 DakshinSunamganj24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com