বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৪৯ পূর্বাহ্ন

pic
নোটিশ :
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে!! জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে বিস্তারিত জানতে : ০১৭১২-৬৪৫৭০৫
হাওরে যাইতে ডর করে !

হাওরে যাইতে ডর করে !

ছায়াদ হোসেন সবুজ:: দক্ষিণ সুনামগঞ্জ সহ গোটা সুনামগঞ্জ জেলায় আকাশে মেঘ দেখলেই এখন বজ্রপাত আতংকে ভুগছে সাধারন মানুষ। ঝড়-বৃষ্টির সাথে যেন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বজ্রপাত। আকাশে বিদ্যুৎ চমকালেই গ্রামগঞ্জে বজ্রপাত ভীতিতে ঘরের বাইরে বেড় হচ্ছে না মানুষ। প্রতিনিয়ত বজ্রপাতে মানুষ মারা যাচ্ছে, এখন এমন হয়েছে অবস্থা বজ্রপাতের আতংকে উপজেলার মানুষ ঘর থেকে বের হতে ভয় পাচ্ছেন।

মৌসূমের শুরুতেই এভাবে ব্যাপক বজ্রপাতের ঘটনায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার সাধারন মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। বিশেষ করে কৃষিজীবীরা সবচেয়ে বেশি আতংকে আছেন, তারা মেঘ দেখলেই ঘরের বাইরে যেতে ভয় পাচ্ছেন। মানুষ এর আগে এমন বজ্রপাতের ঘটনা এতটা দেখেনি। বর্তমান পরিস্থিতিতে আকাশে মেঘের গর্জন শুনলেই গ্রামের মানুষ ঘরের বাহিরে যেতে ভয় পাচ্ছেন। হঠাৎ বেড়ে যাওয়া এ দুর্যোগে সারা উপজেলায় মানুষ আতংকে রয়েছেন। গতকালও দেখা গেছে আকাশে বিজলী চমকালেই গাড়ি রেখে কোথাও দ্রুত আশ্রয় নিচ্ছেন লোকজন। হাওরে সোনালী ধানের হাতছানি। কৃষকরা এখন হাওরে যেতে নারাজ।

“হাওরে যেতে ডর করে” কোনসময় জানি ঠাডা পড়ে। ইতার লাগি ঘর থাকি বাড়াই না। কয়দিন ধরি খালি মেঘ আর ঠাডা দের ইতা দেইক্কা কিলা যাই হাওরো। আর কয়দিন ইলা চলবো আল্লায় জানইন।এমনটাই বলছিলেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জের বড়মোহা গ্রামের কৃষক রফিক মিয়া।

ডুংরিয়া গ্রামের কৃষক সালামত মিয়া জানান, আমার কিছু জমিন পাকনা ধরছে। আশা কররাম কয়দিন পর ধান কাটা শুরু করিদিমু। তবে এখন যেলা মেঘ আর ঠাডা শুরু হইছে হাওরে যাওয়া তো দুরের কথা ঘর থাকি অই বাড়াইতে ডর করে। যেলা মানুষ মরার খবর হুনরাম কিলা বাড়াই ঘর থাকি। হাওর ধান দেখাত যাইতাম অউ পাররাম না। অনে আমরার এলাকাত ঠাডার ডরে মানুষ ঘরবৈটি।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার একাধিক বাসিন্দারা জানান, কয়েকদিন যাবৎ যেভাবে বজ্রপাত শুরু হয়েছে। মানুষ ঘরথেকেই বের হতে ভয় পাচ্ছে। এর ফলে জনশুণ্য হয়ে পরছে হাঠবাজার গুলো। এখন সাধারণ মানুষে আতংকের অপর নাম বজ্রপাত। আকাশ সামান্য মেঘাচ্ছন্ন দেখলেই এলাকার মানুষ দ্রুত বাড়িতে চলে আসে। আমাদের এলাকার মানুষরা বিশেষ করে কৃষকরা বজ্রপাতের ভয়ে হাওরে যাচ্ছেন না। ফলে মাঠে সোনালী ফসলের তদারকি করতে পারছেন না তারা।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 DakshinSunamganj24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com