শনিবার, ২৫ Jun ২০২২, ০৫:০৪ অপরাহ্ন

pic
নোটিশ :
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে!! জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে বিস্তারিত জানতে : ০১৭১২-৬৪৫৭০৫
জামালগঞ্জে ইউপি সদস্যের সহযোগীতায় বাল্যবিবাহ

জামালগঞ্জে ইউপি সদস্যের সহযোগীতায় বাল্যবিবাহ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার ভীমখালী ইউনিয়নের ছেলাইয়া গ্রামের ইউপি সদস্য তহুর মিয়ার সহযোগীতায় বাল্যবিবাহ মাধ্যমে কনে ঘরে উঠানোর অভিযোগ উঠেছে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানাযায়, শনিবার বিকেলে ভীমখালী ইউনিয়নের ছেলাইয়া গ্রামের আব্দুলাহর ১৩ বছর বয়সের কিশোরী মেয়েসহ তার প্রেমিক বেহেলী আলীপুর গ্রামের গোলাম রব্বাণীর পূত্র জুনেল (২১) ও একই গ্রামের আব্দুল ছোবান মিয়ার পূত্র বন্ধু রুপ আলম(২৩) কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে এসআই সাইফুল্লাহ আকন্দ। প্রেমিক জুনেল জানান, দীর্ঘ ৬মাস আগে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রেম হয় জুনেলের সাথে ঐ কিশোরী। ৬মাস অতিবাহিত হওয়ার পর গত শুক্রবার রাতে কিশোরী প্রেমিক জুনেলকে মোবাইল ফোনে জানাই সে যেন জামালগঞ্জ লেগুনা স্ট্যান্ডে উপস্থিত থাকে। সেই কথামতে যথাসময়ে পরদিন সকাল ১০টায় জুনেল তার দুই বন্ধসহ লেগুনা স্ট্যান্ডে হাজির হলে পূনরায় ফোনে জানায় কিশোরীর নিজ বাড়িতে আসার জন্য। সেই কথামতে প্রেমিক তার বন্ধুসহ কিশোরী বাড়িতে গেলে ইউপি সদস্য তহুর মিয়াসহ এলাকার কয়েকজন মিলে আটক কওে রাখে। এক পর্যায়ে প্রেমিক জুনেলের কাছে তাদের ছেড়ে দিতে ইউপি সদস্য ১৫হাজার টাকা দাবি করে। প্রেমিক টাকা দিতে না পারায় থানায় খবর দিলে পুলিশ তাদের প্রেমিক যুগলকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এদিকে অপর বন্ধু বেহেলী ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্যা সেরেনার পূত্র তোফায়েলকে ইউপি সদস্য তহুর মিয়া ৫হাজার টাকা চুক্তির মাধ্যমে ২হাজার টাকা নগদ পেয়ে বাকি ৩হাজার জন্য সোমবার রাত পর্যন্ত তোফায়েলের মা র মোবাইল ফোনে তাগিদ দেন তহুর। এদিকে থানা পুলিশ প্রেমিক যুগল কে বিয়ে দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিলে গণমাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতি টের পেয়ে বিবাহ না দিতে পেরে গভীররাতে অদৃশ্য ইশারায় প্রেমিক যুগলকে ছেড়ে দেয়।
অপরদিকে ইউপি সদস্য তহুর মিয়া থানা থেকে তাহার নিজ জিম্মায় প্রেমিক যুগলকে প্রেমিকার বাড়িতে নিয়ে গিয়ে প্রেমিক জুনেলের অভিবাবকের কাছ থেকে বয়স বাড়িয়ে জম্মনিবন্ধন করে দিবে বলে ১০ হাজার টাকা নিয়ে জম্মনিবন্ধন করতে ব্যর্থ হয়ে ৫শত টাকা খরচ দেখিয়ে সাড়ে ৯হাজার টাকা ফেরত দেন। গতকাল সোমবার নববধুসহ ছেলের আত্বীয় স্বজনসহ নববধূ নিয়ে বাড়িতে যান। সংবাদ পেয়ে গণমাধ্যম কর্মী ও সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য জালাল আহমেদ সহ জুনেলের তাদের বাড়িতে গেলে তার ভগ্নীপতি জানান তাদেও বিয়ে হয়ে গেছে।
গণমাধ্যম কর্মীরা কাবিননামা ও জম্মনিবন্ধন দেখতে চাইলে তারা তা দেখাতে ব্যর্থ হয়ে বলেন, তাদের কোন ধরণের বিয়ে হয়নায়। কিছুদিনের জন্য বেড়াতে এসেছে। বেহেলী ইউপি সদস্য জালাল মিয়া বলেন, আমি গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে জানতে পারি তাদের ঘরে নতুন বধু এসছে। কিন্তু তারা বিবাহে বয়স প্রমাণের জন্য কোন কাগজ বা জম্মবিন্ধন দেখাতে পারেনাই। ভীমখালী ইউপি সদস্য তহুর মিয়াকে বার বার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেনাই।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 DakshinSunamganj24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com