বুধবার, ২৯ Jun ২০২২, ০৩:৫২ পূর্বাহ্ন

pic
নোটিশ :
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে!! জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে বিস্তারিত জানতে : ০১৭১২-৬৪৫৭০৫
সিলেটে নিজ শয়ন কক্ষে মা-ছেলে খুন

সিলেটে নিজ শয়ন কক্ষে মা-ছেলে খুন

সিলেটে মা-মেয়ে খুনের ঘটনায় মামলাrtv-rtvonline

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ২৪ ডেস্ক:
সিলেট নগরীতে নিজ শয়ন কক্ষে খুন হলেন মা ও ছেলে। তাদের রক্তাক্ত নিথর দেহ পুলিশ রবিবার প্রায় ৭ ঘণ্টা পর সুরতহাল শেষে বিকাল পৌনে ৬টায় উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ঐ ঘর থেকে উদ্ধার পাওয়া শিশু রাইসা বেগমকে (৫) ওসমানী হাসপাতালে পুলিশের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ঘটনার পর থেকে কাজের মেয়ে পলাতক রয়েছে। এসএমপির পুলিশ কমিশনার গোলাম কিবরিয়া রবিবার সন্ধ্যায় ইত্তেফাককে বলেছেন, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পুলিশের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তারা ঘটনার ক্লু-বের করার চেষ্টা করছেন। মিরাবাজারস্থ খাড়পাড়ার মিতালী আবাসিক এলাকার অর্ধনির্মিত ৩ তলা ভবনের নিচ তলা মিতালী ১৫/জে নম্বর বাসা। মা ও ছেলে খুনের ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ সকাল ১০টার দিকে ঐ বাসায় যায়। ফিরে এসে এসআই বিষ্ণু পদ রায় জানান, তারা সেখানে গিয়ে দেখেন ঘরের দরজা বন্ধ। জানালা দিয়ে দেখা যায় একটি শিশু কন্যা কাঁদছে। সে দরজা খুলতে পারছে না বিধায় পুলিশ ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে প্রথমে শিশুটিকে উদ্ধার করে। পরে দেখা যায় দুটি কক্ষে মা ও ছেলের লাশ। রইসা খুন হওয়া ঐ মহিলার সন্তান। পরে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছান। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) মুহাম্মদ আব্দুল ওয়াহাব মরদেহ দুটি উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতরা হলেন রোকেয়া বেগম (৪০) ও তার ছেলে রবিউল ইসলাম রূপম (১৬)। উদ্ধার করা শিশুটি রোকেয়ার মেয়ে রাইসা বেগম (৫)। নিহত রোকেয়া বেগম বারুতখানা নিবাসী প্রবাসী হেলাল আহমদের স্ত্রী ও একজন পার্লার ব্যবসায়ী। অপর একাটি সূত্র জানায় মহিলার মূল বাড়ি কুমিল্লা। তিনি তার স্বামীর দ্বিতীয় স্ত্রী। নিহত রূপম এবছর এসএসসি পরীক্ষার্থী। সূত্র জানায়, রোকেয়া বেগম তার ছেলে, মেয়ে ও একটি কাজের মেয়ে নিয়ে খাড়পাড়ার মিতালী আবাসিক এলাকার ১৫/জে নম্বর বাসার নিচতলায় ভাড়া থাকতেন। তবে তার স্বামী অসুস্থ থাকায় তিনি অন্যখানে তার নিজ বাড়িতেই থাকতেন। নিহত রোকেয়ার ভাই জাকির হোসেন জানান, গত শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে তিনি তার বোনের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়ায় রবিবার বোনের বাসায় আসেন। বোনকে অনেক ডাকাডাকির পরও সারা না পেয়ে তিনি উপরতলায় মালিক সালমান হোসেনকে খবর দেন। পরে পুলিশ এসে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ জানান, ‘ধারণা করছি শুক্রবার বিকালে এ হত্যাকাণ্ডটি ঘটে থাকতে পারে। রোকেয়া বেগমের শরীরের বেশ কয়েকটি স্থানে ছুরিকাঘাত রয়েছে। এদিকে ছেলে রূপণকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। ঐ পুলিশ কর্মকর্তা জানান, রাইসাকেও তারা সম্ভবত মারার চেষ্টা করে পরে মৃত ভেবে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। মূল ঘটনা তদন্তের পরেই নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা। এদিকে পুলিশ নিহত রোকেয়ার বাড়ি থেকে তার ব্যবহৃত কম্পিউটারটি জব্দ করেছে। স্থানীয় সূত্র জানায় নিহত রোকেয়ার স্বামী বা তার আত্মীয় স্বজন কাউকে ঘটনা স্থলে দেখা যায়নি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 DakshinSunamganj24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com