মঙ্গলবার, ২৮ Jun ২০২২, ০৬:০৬ পূর্বাহ্ন

pic
নোটিশ :
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে!! জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে বিস্তারিত জানতে : ০১৭১২-৬৪৫৭০৫
জামালগঞ্জে রহিম নগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা অর্চনা দাস বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত দিনের পর দিন

জামালগঞ্জে রহিম নগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা অর্চনা দাস বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত দিনের পর দিন

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি::সুনামগঞ্জে জামালগঞ্জ উপজেলার রহিমনগড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের (প্রাক-প্রাথমিক) সহকারী শিক্ষিকা অর্চনা রানি দাস নির্ধারিত সময়ে স্কুলে উপস্থিত না থাকায় তার বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। লিখিত অভিযোগে জানাযায়,উক্ত স্কুলের শিক্ষিকা অর্চনা দাস গত ০৮-১১-১৭ইং তারিখ থেকে ০৮-১২-১৭ইং তারিখ পর্যন্ত অসুস্থতা জনিত কারণে ছুটি নিয়ে যান,কিন্তু উল্লেখিত ছুটির পরও তিনি কর্মস্থলে যোগদান করেন না। উক্ত বিষয়টি রহিম নগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লিটন কুমার রায় বার বার উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে লিখিতভাবে জানালে কোন সদুত্তর পাওয়া যায়নি। সরেজমিনে গিয়ে দেখা য়ায়,রহিমনগর সরকারী ৫ জন শিক্ষকের মাঝে ৪ জন আছেন শুধু অর্চনা দাসকে স্কুলে পাওয়া যায়নি। গ্রামের গণ্যমান্য ব্যাক্তি আছদ্দর আলী বলেন,অর্চনা দাস স্কুলে আসেন না অনেকদিন ধরে। বিদ্যালয়ে নতুন কোন শিক্ষকও দেওয়া হয় না এভাবে চললে আমরা বাচ্চারা কিভাবে স্কুলে লেখাপড়া করবে।
বিদ্যালয় কমিটির সভাপতি জয়নাল আবেদীন বলেন,এই বিদ্যালয়টা ১৯৪৭ সালে স্থাপিত হয় এই বিদ্যালয়ে আমি পড়েছি,আমার ছেলেমেয়েরা লেখাপড়া করে আজকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকুরীরত আছে। বর্তমানে যেভাবে চলছে এতে আমাদের গ্রামের ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার খুব অসুবিধা হচ্ছে। তাই আমরা চাই আমাদের শিক্ষক দেওয়া হউক। রহিম নগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লিটন কুমার রায় বলেন,আমি বিষয়টা উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে লিখিতভাবে বার বার জানিয়েছি কিন্তু তার পরও কোন কাজ হচ্ছেনা। সহকারী শিক্ষক বিপ্লব কুমার দাস,আকমল হোসেন ও দপ্তরী মো:আলম শাহ বলেন,রেকর্ড অনুযায়ি যা পাওয়া গেছে তাই সত্যি। সহকারি শিক্ষিকা অর্চনা দাস ১ মাসের ছুটি নিয়েছেন ঠিকই কিন্তু আজ পর্যন্ত আসেন নি। এব্যাপারে সহকারী শিক্ষিকা অর্চনা দাস বলেন,আমি ডেপোটেশনে আছি আপনি নিউজ করলে করতে পারেন আমার কিছুই হবেনা। আপনার চেয়ে বড় বড় সাংবাদিকের সাথে আমার পরিচয় আছে আমার কিছুই হবে না।
উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মীর আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন,শিক্ষিকা অর্চনা দাসকে মৌখিক ডেপোটেশনে মল্লিকপুর সরকারী প্রাথমিকে দেওয়া হয়েছে। তবে এই মাস পরে চলে আসবে। এ ব্যাপারে লেখার দরকার কি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 DakshinSunamganj24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com