শনিবার, ২৫ Jun ২০২২, ০৪:২২ অপরাহ্ন

pic
নোটিশ :
পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে!! জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে বিস্তারিত জানতে : ০১৭১২-৬৪৫৭০৫
দোয়ারাবাজারে শিক্ষার্থীদের হাতে অধ্যক্ষ লাঞ্চিত বিক্ষোভ মিছিল, কক্ষ ভাংচুর

দোয়ারাবাজারে শিক্ষার্থীদের হাতে অধ্যক্ষ লাঞ্চিত বিক্ষোভ মিছিল, কক্ষ ভাংচুর

এম.এ মোতালিব ভুইয়া,
দোয়ারাবাজারে শিক্ষার্থীদের হাতে লাঞ্চিত হয়েছেন অধ্যক্ষ একেএম মুজিবুর রহমান। তিনি উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়নের ঘিলাছড়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষের দরজা-জানালা ভাংচুর করে অধ্যক্ষকে প্রায় আধ ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা।
বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা জানায়, স্কুল ও কলেজ মাঠে ২৬ মার্চ উপলক্ষে ৩দিনব্যাপী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের অনুমতি চেয়ে অধ্যক্ষ বরাবরে আমরা একাধিকবার আবেদন করেছি। কিন্তু অধ্যক্ষ ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ একরামুল হক অনুমতি না দিয়ে বরং উল্টো তুচ্ছ-তাচ্ছিল্ল করে আমাদেরকে অকথ্য ভাষায় প্রায়ই গালমন্দ করেছেন।
এ ব্যাপারে অধ্যক্ষ একেএম মুজিবুর রহমান বলেন, প্রতিষ্টানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল করে। আগামী ২৬মার্চ পালন করা নিয়ে বিষয়টি শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। শিক্ষার্থীরা ২৬মার্চ উপলক্ষে ৩দিনব্যাপী অনুষ্টান করতে চেয়েছিল। এরই জের ধরে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা এই ঘটনার সৃষ্টি হয়েছে।
সোনালী চেলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জানান, পিতৃ সমতুল্য শিক্ষকের প্রতি শিক্ষার্থীদের এহেন রূঢ় আচরণ মোটেই কাম্য নয়। প্রাতিষ্ঠানিক কর্মকান্ডে আমার অভিজ্ঞতা দেখে ঈর্ষান্বিত হয়ে একটি বিশেষ মহল আমার বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে। বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও প্রতিষ্টানের স্বার্থে এ ঘটনার সুষ্ট বিচার করা প্রয়োজন।
প্রতিষ্টানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ একরামুল হক বলেন, এলাকার একটি কুচক্রি মহল কতিপয় অসাধু শিক্ষার্থীদের মদদ দিয়ে আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুনাম ক্ষুন্ন করার অপপ্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে। সোনালী চেলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিুকল ইসলাম বলেন, পিতৃতুল্য শিক্ষাগুরুর প্রতি শিক্ষার্থীদের এই রকম অপমানজনক আচরণের সুষ্ঠ বিচারের প্রয়োজন রয়েছে।
বিকালে এলাকাবাসীর আহ্বানে ইউপি চেয়ারম্যান নুর উদ্দিনসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে নিস্পত্তি করা হয়েছে।
দোয়ারাবাজার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মেহের উল্লা জানান, এই ঘটনার বিষয়ে আমাকে এখন পর্যন্ত কেউ জানায়নি। আমি খোঁজ-খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 DakshinSunamganj24.Com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com